হাইজাম্পে চমক সিরাজের,শূন্যে লাফিয়ে ৯ ফুট উঁচু থেকে অবিশ্বাস্য ক্যাচ,অবাক ভারতীয় দল- ভিডিয়ো

মহম্মদ সিরাজ এই মুহূর্তে ভারতের অন্যতম সেরা পেসার সন্দেহ নেই। তবে তাঁকে ভারতীয় দলের অন্যতম খারাপ ফিল্ডার বললে ভুল বলা হয় না মোটেও। যদি বলা হয় সিরাজ সহজ ক্যাচ ছেড়েছেন, তাতে বিন্দুমাত্র অবাক হবেন না ভারতীয় ক্রিকেটপ্রেমীরা। তবে ডমিনিকায় মিয়াঁ যা করে দেখালেন, তা সমর্থকদের অবাক করবে সন্দেহ নেই।ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম ইনিংসে জাদেজার বলে জার্মাইন ব্ল্যাকউডের অবিশ্বাস্য ক্যাচ ধরেন সিরাজ।

লাঞ্চের আগে দিনের প্রথম সেশনের শেষ ওভারে বল করতে আসেন রবীন্দ্র জাদেজা। ওভারের একেবারে শেষ বলে তিনি তুলে নেন ব্ল্যাকউডের উইকেট। তবে এই উইকেটের জন্য জাদেজার থেকেও বেশি কৃতিত্ব প্রাপ্য সিরাজের।ইনিংসের ২৭.৬ ওভারে জাদেজার বল লং-অফে তুলে মারেন ব্ল্যাকউড। মিড অফ থেকে নিজের ডানদিকে দৌড়ে শূন্য লাফিয়ে ওঠেন সিরাজ। তাঁর লাফানোর টাইমিং ছিল নিখুঁত। ৯ ফুট উঁচুতে থাকা বল এক হাতে তালুবন্দি করেন সিরাজ।

```

শরীর মাটিতে পড়ার পরে কনুইয়ে হালকা চোট পান সিরাজ। তবে তিনি ক্যাচ ছাড়েননি। তাঁর এমন দুর্দান্ত ফিল্ডিংয়ের জন্য ব্ল্যাকউডকে ব্যক্তিগত ১৪ রানের মাথায় সাজঘরে ফিরতে হয়। ৩৪ বলের সতর্ক ইনিংসে তিনি ১টি চার মারেন।ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলগত ৬৮ রানে ৪ উইকেট হারানো মাত্রই প্রথম দিনের লাঞ্চের বিরতি ঘোষিত হয়। উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, সেশনের শেষ ওভারে সব ব্যাটসম্যানকেই সতর্ক হয়ে ব্যাট করতে দেখা যায়। সেখানে ব্ল্যাকউড ১টি বল ডিফেন্স করলেই অপরাজিত থেকে লাঞ্চের বিরতিতে যেতে পারতেন। অকারণ ঝুঁকি নিয়ে বড় শট খেলার চেষ্টা করেন ব্ল্যাকউড। যার মাশুল দিতে হয় তাঁকে এবং তাঁর দলকে। দেখুন সিরাজের সেই ভিডিও :

শুধু লাঞ্চের ঠিক আগেই নয়, বরং লাঞ্চের ঠিক পরেও আরও একটি উইকেট তুলে নেন জাদেজা। ইনিংসের ৩১.৫ ওভারে রবীন্দ্র জাদেজার বলে ইশান কিষানের দস্তানায় ধরা পড়েন জোশুয়া ডা’সিলভা। ১৩ বলে ২ রান করেন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ ৭৬ রানে ৫ উইকেট হারায়।দ্বিতীয় সেশনে জেসন হোল্ডরকে সাজঘরে ফেরান মহম্মদ সিরাজ।

```

ইনিংসের ৪৯.৪ ওভারে মহম্মদ সিরাজের বলে বড় শট নেওয়ার চেষ্টায় বাউন্ডারি লাইনে শার্দুল ঠাকুরের হাতে ধরা পড়েন হোল্ডার। ১টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৬১ বলে ১৮ রান করে মাঠ ছাড়েন তিনি। ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলগত ১১৭ রানের মাথায় ৬ উইকেট হারায়।