সারা বিশ্বে বাঙালির জয়জয়কার! বাঙালি কন্যার অনন্য কৃতিত্ব, জানলে গর্ব হবে বাঙালিদের

বার্মিংহ্যামে অনুষ্ঠিত দশম কমনওয়েলথ কারাটে চ্যাম্পিয়নশিপে (Commonwealth Karate Championships 2022) বাংলা তথা দেশের মুখ উজ্জ্বল করলেন হাওড়ার মেয়ে ঐশ্বর্য মান্না (Aishraya Manna)। অংশগ্রহণকারী ২০টি দেশের ১২৮ জন প্রতিযোগীর মধ্যে থেকে তৃতীয় স্থানে শেষ করে ঐশ্বর্যের গলায় উঠেছে ব্রোঞ্জ পদক। বাংলার মেয়ে সাফল্য সহজে আসেনি। শক্তিশালী অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ড, নাইজেরিয়া এবং কানাডার মতো দেশের প্রতিযোগীদের একাধিক রাউন্ডে ঘোল খাইয়েছেন ঐশ্বর্য।

হাওড়া ডুমুরজলা এলাকার কলাবাগান লেনের বাসিন্দা ঐশ্বর্য। গতকালই ব্রিটেন থেকে দেশে ফিরেছেন তিনি। স্বভাবতই খুশি ঐশ্বর্যের পরিবারের সবাই। বাবা চঞ্চল মান্না জানিয়েছেন যে, পার্ক স্ট্রিট গণধর্ষণ কাণ্ডের পর মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় মেয়েদের আত্মরক্ষায় মার্শাল আর্ট শেখানোর নির্দেশ দিয়েছিলেন স্কুলগুলিতে। ঐশ্বর্য তখন ছিলেন ষষ্ঠ শ্রেণিতে। সেই সময় থেকেই স্কুলে কারাটে শেখার শুরু তাঁর।তারপর আরও ভালো কোচিংয়েই সাফল্য আসতে থাকে ঐশ্বর্যর।

দু’বছর আগে হায়দরাবাদে গিয়ে প্রশিক্ষণ নিতে শুরু করেন ঐশ্বর্য। রাজ্য ও জাতীয় স্তরের প্রতিযোগিতায় তাঁর দু’টি স্বর্ণপদক রয়েছে। বার্মিংহ্যামে সাফল্যের পর এই প্রথম আন্তর্জাতিক স্তরে অনূর্ধ্ব-২১ বয়স ভিত্তিক প্রতিযোগিতায় পদক এল তাঁর। তবে অনুশীলনে হয়তো কিছু খামতি ছিল বলেই কাঙ্খিত সোনা আসেনি বলেই মত ঐশ্বর্যর। সেই খামতি কাটিয়েই জাকার্তায় আসন্ন বিশ্বচ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়ে সোনা জিততে মরিয়া বঙ্গতনয়া। ইতিমধ্যে প্রস্তুতিও শুরু করে দিয়েছেন তিনি।

যেমনটা জানা যায়, পার্কস্ট্রীট গণধর্ষণ কাণ্ডের পর মুখ্যমন্ত্রী মেয়েদের আত্মরক্ষায় স্কুলগুলোতে ক্যারাটে প্রশিক্ষণের নির্দেশ দিয়েছিলেন। সেই সময় ক্লাস সিক্সে পড়াকালীন স্কুলে ক্যারাটে প্রশিক্ষণের তালিম নিতে শুরু করেছিল হাওড়ার ঐশ্বর্য। ২০২২ এর কমনওয়েলথ ক্যারাটে চ্যাম্পিয়নশিপে সেই ঐশ্বর্য মান্না’ই ব্রোঞ্জ পদক জিতেছেন। হাওড়ার ঐশ্বর্য মান্না(Aishwarya Manna) ইংল্যান্ডের বার্মিংহামে ৮ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর আয়োজিত ক্যারাটে প্রতিযোগিতায় ব্রোঞ্জ পদক জয় করেছেন।

ঐশ্বর্যর(Aishwarya Manna) বাড়ি হাওড়া ডুমুরজলার কলাবাগান লেনে। শনিবার রাতেই তিনি হাওড়ার বাড়িতে ফেরেন। পরিবারে মেয়েকে নিয়ে খুশির হাওয়া। ঐশ্বর্য’র বাবা চঞ্চল মান্না মেয়ের এই সাফল্যে ভীষণ খুশি। সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানিয়েছেন, পদক জয়ের পর শুধু অপেক্ষায় ছিলাম মেয়ে কখন বাড়ি আসবে।পদক জয়ের পর ঐশ্বর্য(Aishwarya Manna) জানিয়েছেন, অনুশীলনে কিছু খামতি ছিল তাই হয়তো সোনার পদক হাতছাড়া হয়েছে। এখন লক্ষ্য জাকার্তায় বিশ্ব চ্যাম্পিয়নশিপে অংশ নিয়ে সোনা জয়। এই প্রথম আন্তর্জাতিক স্তরে অনুর্ধ্ব ২১ বিভাগের প্রতিযোগিতায় পদক জিতলেন বাংলার ঐশ্বর্য।