৫০০তম ম্যাচে সেহবাগের রেকর্ড ভেঙে ভারতকে চালকের আসনে বসিয়ে ইতিহাস গড়লেন বিরাট কোহলি!

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই প্রথম ম্যাচে জয়লাভ করেছে ভারত এবং সেটা খুবই সহজে, কাল থেকে শুরু হয়েছে ভারত এবং ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যে দ্বিতীয় ম্যাচ যেখানে আবার টসে জিতেছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং টসে জিতে তারা এবারে ফিল্ডিং করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে, প্রথমে ব্যাট করতে এসে ভারতীয় দলের দুই ওপেনার রোহিত শর্মা এবং যশস্বী জসওয়াল শুরুটা আগের দিনের মতোই করেছিলেন এবং রীতিমতো আমরা দেখতে পারছিলাম দুটো ব্যাটসম্যান সেঞ্চুরি পথে এগোচ্ছে কিন্তু মাঝপথে দুজনই আউট হয়ে যায়। তখন ভারতীয় দলের হাল ধরেন বিরাট কোহলি।

যশস্বী জসওয়াল ৫৭ রান করে আউট হয়ে যান এবং রোহিত শর্মা ৮০ রান করে ড্রেসিংরুমে ফিরে যান, এরপরে ভারতের আরো দুটি উইকেট পড়ে যায় খুব তাড়াতাড়ি যেখানে রাহানে মাত্র ৮ রানে ড্রেসিং রুমে ফিরে যান এবং শুভমান গিল আউট হন ১০ রানে। লাগাতার চার উইকেট হারিয়ে চাপের পড়ে যায় ভারত আর তখনই কোহলি তার নিজের আসল খেলাটি দেখান। বিরাট কোহলি লাগাতার একের পর এক বাউন্ডারি হাঁকিয়ে প্রথমে অর্ধশত রান সম্পন্ন করেন, তারপরে তিনি সেঞ্চুরির পথে এগোতে থাকেন।প্রথম দিনের খেলা শেষ হওয়া পর্যন্ত বিরাট কোহলি ৮৭ রানে পৌঁছে গেছেন। রবীন্দ্র জাদেজা, তিনি এখন ৩৬ রানে ব্যাট করছেন। ভারতীয় দলের বর্তমান স্কোর ২৮৮।পাশাপাশি জানিয়ে রাখবো যে এই অনবদ্য ইনিংস দিয়ে বিরাট কোহলি বেশ কয়েকটি রেকর্ড ভেঙেছেন।

```

মাইলস্টোন ম্যাচে দুরন্ত মাইলস্টোন বিরাট কোহলির। কেরিয়ারের ৫০০তম আন্তর্জাতিক ম্যাচে অনবদ্য হাফ-সেঞ্চুরি করেন কোহলি। সেই সুবাদে তিনি সব থেকে বেশি টেস্ট রান সংগ্রহকারীদের তালিকায় বীরেন্দ্র সেহওয়াগকে পিছনে ফেলে দেন।ভারতীয় ক্রিকেটারদের মধ্যে সব থেকে বেশি টেস্ট রান সংগ্রহ করার নিরিখে তালিকার পাঁচ নম্বরে উঠে আসেন বিরাট। তাঁর সামনে রয়েছেন কেবল সচিন তেন্ডুলকর, রাহুল দ্রাবিড়, সুনীল গাভাসকর ও ভিভিএস লক্ষ্মণ।উল্লেখ্য, ভারতের জার্সিতে টেস্টে সব থেকে বেশি রান করার নিরিখে সেহওয়াগকে আগের ম্যাচেই টপকে যান বিরাট। তবে বীরু আইসিসি একাদশের হয়ে ১টি টেস্ট খেলেছেন। ভারত ও আইসিসি একাদশের হয়ে সাকুল্যে ১০৪টি টেস্ট ম্যাচ খেলে সেহওয়াগ সংগ্রহ করেছেন ৮৫৮৬ রান।পোর্ট অফ স্পেনে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিরুদ্ধে সিরিজের দ্বিতীয় টেস্টের আগে দীর্ঘতম ফর্ম্যাটে কোহলির ব্যক্তিগত সংগ্রহ ছিল ৮৫৫৫ রান। সুতরাং, সেহওয়াগকে টপকাতে বিরাটের দরকার ছিল মাত্র ৩২ রান।

কুইন্স পার্ক ওভালে ব্যক্তিগত অর্ধশতরান করার পথে কোহলি পিছনে ফেলে দেন বীরুকে। তিনি প্রথম দিনের শেষে অপরাজিত থাকেন ব্যক্তিগত ৮৭ রান। সুতরাং, টেস্টে কেরিয়ারে বিরাটের ব্যক্তিগত সংগ্রহ দাঁড়ায় সাকুল্যে ৮৬৪২ রান।উল্লেখ্য, এখনও পর্যন্ত বিশ্বের মোট ১০জন ক্রিকেটার সব ফর্ম্যাট মিলিয়ে ৫০০ আন্তর্জাতিক ম্য়াচের গণ্ডি টপকেছেন। কোহলির আগে আর কেউ নিজের ৫০০তম আন্তর্জাতির ম্যাচে হাফ-সেঞ্চুরির গণ্ডি টপকাতে পারেননি। ২০১৩ সালে কেরিয়ারের ৫০০তম ম্যাচে শ্রীলঙ্কার কুমার সাঙ্গাকারা ৪৮ রান করেন। এতদিন সেটিই ছিল ৫০০ ম্যাচের মাইলস্টোনে কোনও ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ ব্যক্তিগত ইনিংস। কোহলিই একমাত্র ক্রিকেটার, যিনি মাইলস্টোন ম্যাচ অর্ধশতরানে স্মরণীয় করে রাখেন।

```

আরও উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, কোহলিই একমাত্র ক্রিকেটার, যিনি কেরিয়ারের ৫০০তম ম্যাচ খেলছেন দীর্ঘতম ফর্ম্যাটে। বাকি ৯ জন ক্রিকেটার হয় ওয়ান ডে, নতুবা টি-২০ ফর্ম্যাটে কেরিয়ারের ৫০০তম ম্যাচ খেলেছেন।কেরিয়ারের ৫০০ আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে সব থেকে বেশি রান করেছেন কোহলিই। তিনিই একমাত্র ক্রিকেটার, যিনি কেরিয়ারের এই পর্যায়ে ২৫ হাজার রানের মাইলস্টোন টপকেছেন। এর আগে কেরিয়ারের ৫০০টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলে সব থেকে বেশি রানের রেকর্ড ছিল রিকি পন্টিংয়ের।