সমস্ত সরকারি অফিস সরকারি জায়গায় হলেও ব্যাংক কেন বিল্ডিং ভাড়া নিয়ে চালানো হয়?জেনে নিন

অনেক সময় আপনারা দেখে থাকবেন পুরো দেশে যেখানে সরকারি অফিস থাকে অধিকাংশ ক্ষেত্রেই সেই সমস্ত সরকারি অফিস গুলি সরকারের নিজস্ব জায়গাতে অর্থাৎ সরকারের নিজস্ব সম্পত্তির উপর হয় অর্থাৎ ওই সরকারি অফিসের বিল্ডিংটি সরকারের নিজস্ব হয় কিন্তু ব্যাংকের ক্ষেত্রে ব্যাপারটি এরকম নয়। ব্যাংক সব সময় কোন না কোন বিল্ডিং ভাড়া নিয়ে চালানো হয় এমনটা কেন।

জানিয়ে রাখি যে যেকোনো সরকারি অফিসের থেকে ব্যাংকের ব্যাপারটি একটু আলাদা। ব্যাংক অধিকাংশ সময় কোন না কোন বিল্ডিং ভাড়া নেয় এবং সেখান থেকে তাদের কাজকর্ম করে থাকে তার বেশ কয়েকটি কারণ রয়েছে। প্রথমত যে সময় ব্যাংকের শুরুটা হয়েছিল ভারতে সেই সময় ব্যাংকের নিজস্ব কোন সম্পত্তি ছিল না যেখানে ব্যাংকের অফিস হবে এবং সেই সময় ভাড়া নিয়ে কাজ শুরু হয়। আর তখন থেকে সেই একই পরম্পরা চলে আসছে যার সেভাবে কোন পরিবর্তন হয়নি।

ব্যাংক ভাড়া দিয়ে চালানোর প্রধান কারণ হলো ব্যাংক এমন একটি সংস্থা যারা সাধারণ মানুষের কাছ থেকে টাকা জমা নেয় অ্যাকাউন্টে এবং সেই টাকাকে আবার সাধারণ মানুষকেই লোন হিসেবে ফেরত দেয় এবং সেখান থেকে সুদের সাহায্যে টাকা ইনকাম করে। এখন ব্যাংক নিজেই যদি কোন জায়গাতে অফিস বানানোর জন্য টাকা দিয়ে জায়গা কিনতে যায় তাহলে ব্যাংককে সেখানে টাকা ইনভেস্ট করতে হবে। আর সেটা ব্যাংকের আসল লক্ষ্য নয় ব্যাংকের আসল লক্ষ্য টাকা ইনকাম কর। টাকা খরচা করা নয়।

অনেক ব্যাংকিং এক্সপার্টদের মতে ভারতে ব্যাংক গুলির জন্য সেভাবে কোন নিয়ম না থাকার জন্য ব্যাংকগুলি এই সুযোগের সৎ ব্যবহার করে এবং সামান্য ভাড়া দিয়ে একটা বড় অফিস বিভিন্ন জায়গায় চালানো হয় এবং সেই জায়গা কিনে ব্যবসা চালাতে গেলে ব্যাংকের ক্ষেত্রে বেশ কিছুটা লোকসানের ব্যাপার হয়ে যাবে।।

অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় যে অনেক জায়গা থেকে ব্যাংক নিজেদের তল্পী তল্পা গুটিয়ে নেয় সে ক্ষেত্রে ব্যাংক যদি কোন স্থায়ী সম্পত্তি বা অফিসের জন্য বিল্ডিং কিনে ফেলে তাহলে সেখান থেকে তল্পি তল্পা গুটানোর সময় আবার সেই সব বিক্রি করার মতো একটা সমস্যার মধ্যে ব্যাংক কে পড়তে হতে পারে। তাই ব্যাংক কখনো কোন প্রপার্টিতে সেভাবে ইনভেস্ট করে না।